মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

ভূমি উন্নয়ন কর ও ফি

বর্তমান সরকারের আমলে দুই বছরের (জানুয়ারি ২০০৯ হতে ডিসেম্বর ২০১০)  অর্জিত সাফল্য সম্পর্কিত ভূমি মন্ত্রণালয়ের তথ্যাদি

ভূমিকাঃ

বর্তমান গণতান্ত্রিক সরকার ক্ষমতাসীন হওয়ার পর ভূমির উন্নয়ন ও দক্ষ ব্যবস্থাপনা এবং সর্বত্তোম ব্যবহার নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে জনগণকে ভূমি বিষয়ক সকল সেবা প্রদানপূর্বক তাদের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও দারিদ্র্য বিমোচণের লক্ষ্যে ভূমি মন্ত্রণালয় নিন্মোক্ত কৌশলগত ও প্রধান কার্যক্রমসমূহ গ্রহণ করেছে।

ভূমি ব্যবস্থাপনা আধুনিকায়ন:

(ক) বাংলাদেশেরভূমিব্যবস্থাপনাকেআধুনিকওযুগোপযোগীকরারউদ্যোগেরঅংশহিসেবেআধুনিকজরিপযন্ত্রপাতি(জিপিএস, ইটিএস, ডাটা রেকর্ডার,  কম্পিউটার, ম্যাপ প্রসেসিং সফটওয়্যার, প্লটার, প্রিন্টার ইত্যাদি)- এর সাহায্যে ডিজিটাল পদ্ধতিতে নক্‌শা ও খতিয়ান প্রণয়নের জন্য একটি পাইলট কর্মসূচির আওতায় ইতোমধ্যে ঢাকা জেলার সাভার উপজেলার ৫টি মৌজার ডিজিটাল জরিপ সম্পন্ন হয়েছে যা আপিল শুনানীর পর্যায়ে রয়েছে। এছাড়া নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলার ৪৮টি মৌজায় ডিজিটাল জরিপ কা‌র্যক্রম শুরু হয়েছে।

(খ) ডিজিটালপদ্ধতিতেভূমিজরিপওরেকর্ডপ্রণয়ন এবং সংরক্ষণ কার্যক্রম (২০১০-২০১৫) এর আওতায় পর্যায়ক্রমে সারাদেশের ভূমি জরিপ, রেকর্ড প্রণয়ন ও ব্যস্থাপনার জন্য ডিজিটাল পদ্ধতি প্রবর্তনের লক্ষ্যে সরকার কর্তৃক প্রাথমিকভাবে ডিজিটাল পদ্ধতিতে ভূমি জরিপ, রেকর্ড প্রণয়ণ এবং সংরক্ষণ প্রকল্প (প্রথম পর্যায়) শীর্ষক একটি উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

(গ) স্ট্রেংদেনিংঅবসেটেলমেন্টপ্রেস, ম্যাপপ্রিন্টিংপ্রেসএন্ডপ্রিপারেশনঅবডিজিটালম্যাপসশীর্ষকপ্রকল্পের আওতায় ১৮.০০(আঠার) কোটি টাকা ব্যয়ে ভূমি রেকর্ড ও জরিপ অধিদপ্তরের সেটেলমেন্ট প্রেসের বিদ্যমান মুদ্রণ ক্ষমতা বৃদ্ধির কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

(ঘ) বর্তমানে ভূমি মন্ত্রণালয়ের অধীন মোকদ্দমাসমূহ ডিজিটাল পদ্ধতিতে ম্যানেজমেন্ট করার জন্য MATT-2 এর আওতায় Batch26 এর Team G কর্তৃক বাস্তবায়িত পাইলট প্রকল্পটি ভূমি মন্ত্রণালয় কর্তৃক গৃহীত হয়েছে। প্রস্ত্তুতকৃত সফটয়্যারটির বিষয়ে Technical Partner ছিল প্রানন প্রাইভেট লিঃ।

বিত্তহীন ও গৃহহীন অতি দরিদ্রদের পুনর্বাসন ও আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন :

(ক) ভূমিমন্ত্রণালয়েরঅধীনগুচ্ছগ্রাম শীর্ষকপ্রকল্পেরআওতায়৯০টিগুচ্ছগ্রামে৩৯৯০টিভূমিহীনপরিবারকেপুনর্বাসনকরাহয়েছে।এছাড়া৩৯৯টিনলকূপস্থাপন, ৭৭টিমাল্টিপারপাসহলনির্মাণকরাহয়েছেএবং৮৭টিগুচ্ছগ্রামেকাবিখার(কাজের বিনিময় খাদ্য) অধীনমাটিরকাজকরাহয়েছে।পুনর্বাসিতপরিবারসমূহেরআর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য আয়বর্ধক প্রশিক্ষণএবংক্ষুদ্রঋনপ্রদানেরজন্যবিআরডিবি-কে৫.৪০ (পাঁচ কোটি চল্লিশ লক্ষ) কোটি টাকা হস্তান্তর করা হয়েছে।

(খ) রাজধানীঢাকারবস্তিবাসীওনিম্নবিত্তদেরসরকারিজমিতেপুনর্বাসনেরলক্ষ্যে ৪৭.৯০ একর জমিতে ১৩২৪৮টি (৭,৭৭৬টি এ টাইপ এবং ৫,৪৭২টি বি টাইপ) এ ও বি টাইপ ফ্ল্যাট নির্মাণ কার্যক্রমের অধীনে ইতোমধ্যে ২৮৮টি এ টাইপের ফ্ল্যাট এবং ৭৬৮টি বি টাইপের ফ্ল্যাট তৈরি করা হয়েছে।

(গ) চরউন্নয়ন‍ওবসতিস্থাপনপ্রকল্প-৩এরআওতায়১৪০০০হাজারএকরখাসজমি৯৫০০(নয় হাজার) টি ভূমিহীনপরিবারেরমধ্যে৮৫০০(আট হাজার) পরিবারকে বন্দোবস্তপ্রদানেরজন্যনির্বাচনকরা হয়েছে। তন্মধ্যে ৪০০০(চার হাজার) টি ভূমিহীন পরিবারের মধ্যে খতিয়ান বিতরণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ৮৫টি ‍টু-ইন হাউজ নির্মাণ করা হয়েছে। বেঁড়ী বাধের বাইরে বসবাসরত পরিবারসমূহের মধ্যে ৭৭৪টি পরিবারকে বাঁধের অভ্যন্তরে পুনর্বাসন করা হয়েছে। এছাড়া প্রকল্প এলাকায় ৩১টি পুকুর খনন করা হয়েছে।

খাসজমিবন্দোবস্তদ্বারাঅর্থনৈতিক উন্নয়ন ও দারিদ্র্য বিমোচনঃ

(ক) বর্তমান সরকার দায়িত্বভার গ্রহণের পর থেকে নভেম্বর ২০১০ পর্যন্ত মোট ৬৩,৯৪১ (তেষট্টি হাজার নয়শত একচল্লিশ)টি ভূমিহীন পরিবারের মধ্যে মোট ২৪,০৬৯ (চব্বিশ হাজার উনসত্তর) একর কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়েছে। চলতি অর্থবছরে (২০১০-২০১১) উপজেলা প্রতি ৪৬টি ভূমিহীন পরিবারের মাঝে ৫০০০ (পাঁচ হাজার) একর কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত প্রদানের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

(খ)‘জাল যার জলা তার’ এ নীতি অবলম্বনে ভূমি মন্ত্রণালয় “সরকারি জলমহাল ব্যবস্থাপনা নীতি, ২০০৯” প্রণয়ন করে প্রকৃত মৎস্যজীবী সমবায় সমিতিকে জলমহাল বরাদ্দ দেয়া হচ্ছে।

এ পর্যন্ত ভূমি মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রীর সভাপতিত্বে জলমহাল ইজারা প্রদান সংক্রান্ত গঠিত কমিটির ৭টি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ৭টি সভায় মোট ৩৩২টি জলমহালের ইজারা প্রস্তাবের মধ্যে ১৬৩টি জলমহাল উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় বিভিন্ন মৎস্যজীবি সমবায় সমিতিকে ইজারা প্রদান করা হয়েছে। এছাড়া জেলা ও উপজেলা জলমহাল ব্যবস্থাপনা কমিটির মাধ্যমে সারাদেশের জলমহালসমূহ ইজারা দেয়ার কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

ভূমি প্রশাসনের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের দক্ষতা উন্নয়নঃ

(ক) জানুয়ারি/০৯হতেনভেম্বর/১০পর্যন্ত ১৭৬৪জনকর্মকর্তা/কর্মচারীকে(৬০৯জনকর্মকর্তাএবং১১৫৫জনকর্মচারী) ভূমিপ্রশাসনপ্রশিক্ষনকেন্দ্রেভূমিবিষয়কপ্রশিক্ষণপ্রদানকরাহয়েছে।

(খ) ভূমিপ্রশাসনপ্রশিক্ষণকেন্দ্রেরপ্রশিক্ষণার্থীদেরআবাসনসুবিধা প্রদানেরজন্য১০কোটিব্যয়েআধুনিকসুযোগসুবিধাসম্বলিতহোস্টেলভবননির্মাণকার্যক্রমশুরুহয়েছে।

(গ) ‍উপজেলা ওইউনিয়নভূমিঅফিসমেরামত(৫মপর্ব) প্রকল্পেরআওতায়১০০টিউপজেলাভূমিঅফিসএবং২০০টিইউনিয়নভূমিঅফিস নির্মাণ করাহবে।এরমধ্যেজুন/১০পর্যন্ত ৫৫টিউপজেলাভূমিঅফিসও৬৫টিইউনিয়নভূমিঅফিসেরকাজসম্পন্নহয়েছে।বর্তমানঅর্থবছরে(২০১০-১১) বিভিন্নজেলাপ্রশাসনকর্তৃকআরও৪৫টিউপজেলাভূমিঅফিসএবংপিডাব্লিউডিকর্তৃক ১৩৫টিইউনিয়ন ভূমিঅফিসেরভবননির্মাণের কার্যক্রম গ্রহণ করা হয়েছে। প্রকল্পেরমাধ্যমেজুন/১০পর্যন্ত ৫৮টিউপজেলাভূমি অফিসএবং২১৪৪টিইউনিয়নভূমি অফিসেআসবাবপত্রসরবরাহকরাহয়েছে।

(ঘ) ২০০৯-১০অর্থবছরেসারাদেশেরজরাজীর্ণউপজেলা/ইউনিয়ন ভূমি অফিসমেরামতওসংস্কারেরজন্য৪.০০কোটিটাকাবরাদ্দকরাহয়েছিল। বর্তমান অর্থবছরে ৬.০০কোটিটাকাএকাজেবরাদ্দপ্রদানকরাহয়েছে।

(ঙ) ভূমিব্যবস্থাপনাকেআধুনিকায়নকরারপদক্ষেপহিসেবেসহকারীকমিশনার(ভূমি) অফিসেরজন্য৯৫৪টিকম্পিউটার, ৪৭৭টিফ্যাক্সও৪৭৭টিফটোকপিয়ারএবং৩৩৭টিনতুনমটরসাইকেলসরবরাহকরাহয়েছে।

(চ) ভূমিরেকর্ডওজরিপঅধিদপ্তরকর্তৃক ১৮২জনবিসিএস কর্মকর্তাকে সার্ভে ও সেটেলমেন্ট ট্রেনিং প্রদানকরাহয়েছে।

ভূমিরেকর্ডসংরক্ষণব্যবস্থারউন্নয়নরাজস্ববৃদ্ধিঃ

(ক) ভূমিরেকর্ডডিজিটাইজেশনকার্যক্রমের অধীনে২০০৯ও২০১০সনেঢাকামহানগরজরিপে১৯১টিমৌজার৪,৪১,৫০৬টিখতিয়ানও৪,০৮৯টিমৌজাম্যাপ-শিটডিজিটাইজেশনেরকাজসম্পন্নকরেতাভূমিরেকর্ডওজরিপঅধিদপ্তরেরওয়েবসাইটে(www.dgdlrs.gov.bd)আপলোডকরাহয়েছে।

(খ) বর্তমানসরকারক্ষমতায়আসারপরভূমিউন্নয়নকরেরদাবিআদায়েরবিষয়টিরউপরনজরদারিবৃদ্ধিরকারণেকরআদায়েরপরিমানবৃদ্ধিপেয়েছে।২০০৮-০৯অর্থবছরেসাধারণওসংস্থারনিকটকরবাবদআদায়২২৪.৮৬/- কোটিটাকাএবং২০০৯-১০অর্থবছরে২৪২/-কোটিটাকাভূমিউন্নয়নকরআদায়হয়েছে।

ভূমিরসুষ্ঠুপরিকল্পিতব্যবহারনিশ্চিতকরণঃ

ভূমিকেতাঁরবৈশিষ্ট্যওগুনাগুণঅনুযায়ীকৃষি, বন, চিংড়ীচাষ, শিল্পাঞ্চল, পর্যটন, প্রাকৃতিকজীববৈচিত্র্যএলাকাইত্যাদিরক্ষেত্রেভূমিরপরিকল্পিতওসুষ্ঠুব্যবহারনিশ্চিতকরারজন্যভূমিমন্ত্রণালয়াধীনকোস্টালল্যান্ডজোনিংপ্রকল্পেরআওতায়উপকূলীয়অঞ্চলের১৯টিজেলাওপ্লেইনল্যান্ডের২টিজেলাসহসর্বমোট২১টিজেলার১৬০টিউপজেলারডিজিটালল্যান্ডজোনিংম্যাপসম্বলিতপ্রতিবেদনপ্রণয়নকরাহয়েছেযাভূমিরঅবক্ষয়রোধকরেভূমিরপরিকল্পিতব্যবহারনিশ্চিতকরবে।

অভ্যন্তরীণআন্তর্জাতিকসীমানাসংক্রান্তজটিলতানিরসনঃ

(ক) বাংলাদেশভারতআন্তর্জাতিকসীমানারবাংলাদেশ-পশ্চিমবঙ্গ(ভারত) সেক্টরের৬২৮টি, বাংলাদেশ-আসাম(ভারত) সেক্টরের৯৩টি, বাংলাদেশ-মেঘালয়(ভারত) সেক্টরের১৩৯টিএবংবাংলাদেশ-ত্রিপুরা(ভারত) সেক্টরের২৬৯টিসহসর্বমোট১১২৯টিস্ট্রীপম্যাপেরস্ক্যানিংওডিজিটাইজিংএরকাজসম্পন্নকরাহয়েছে।

(খ) আন্তর্জাতিক সীমানার মেইন পিলার, সাব-সিডিয়ারি পিলার, রেফারেন্স পিলার ও টি-শেপড্‌ পিলারসহ বাংলাদেশ-পশ্চিমবঙ্গ (ভারত) সেক্টরের মোট ৯৯৯৬টি পিলার, বাংলাদেশ-আসাম (ভারত) সেক্টরের মোট ৩১৯৯টি পিলার, বাংলাদেশ মেঘালয় (ভারত) সেক্টরের মোট ৭৬৩২টি পিলার এবং বাংলাদেশ ত্রিপুরা (ভারত) সেক্টরের মোট ২১৬৭০টি পিলারসহ সর্বমোট ৪২৪৯৬টি সীমানা পিলারের ডাটা এন্ট্রির কাজ ইতোমধ্যে সম্পন্ন করা হয়েছে।

ভূমিসংক্রান্তআইনপ্রণয়নঃ

(ক) বালুওমাটিব্যবস্থাপনাআইন২০১০প্রনয়ণকরাহয়েছে।বিপননেরউদ্দেশ্যেউত্তোলিতযেকোনবালুইজারারএকককর্তৃপক্ষহবেভূমিমন্ত্রণালয়।পরিবেশসংরক্ষনেরবিষয়টিআইনেসর্বাধিকগুরুত্বপেয়েছে।

(খ) অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যার্পণ আইন ২০০১ এর সুষ্ঠু বাস্তবায়নকল্পে অর্পিত সম্পত্তি প্রত্যার্পণ (সংশোধন) আইন, ২০০৯ মহান জাতীয় সংসদদে ০৭/১২/২০১০ তারিখে উত্থাপিত হয়েছে। বিলটি পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ভূমি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে প্রেরণ করা হয়েছে।

(গ) ভূমি মন্ত্রণালয় কর্তৃক “ভূমি ব্যবহার ও ব্যবস্থাপনা আইন, ২০১০” নামে একটি আইন এর খসড়া প্রণয়ন করা হয়েছে যা অচিরেই চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিপরিষদ সভায় উপস্থাপন করা হবে।

অধিগ্রহণ সংক্রান্ত তথ্যাদিঃ

(১) পদ্মা বহুমুখী সেতু প্রকল্পের আওতায় শরীয়তপুর, মাদারীপুর ও মুন্সিগঞ্জ জেলায় সর্বমোট ১৮৪৪.১১৪২ একর জমি অধিগ্রহণ ও ৪০২.৬৮৪১ একর জমি হুকুম দখল করে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে হস্তান্তর ও ক্ষতিগ্রস্থদের ক্ষতিপূরণ প্রদান কার্যক্রম অব্যহত রয়েছে।

(২) গাজীপুর জেলার বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক নির্মাণ ১ম ও ২য় পর্যায়ে ১৭৫.২৭ একর জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(৩) গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গীপাড়া আন্তর্জাতিক মানের পর্যটন কেন্দ্র স্থাপনে ১১৩.৪০ একর জমি অধিগ্রহণ করা সম্পন্ন।

(৪) গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গীপাড়া-কোটালীপাড়া (মাঝবাড়ি) সড়ক উন্নয়ন প্রকল্প বাস্তবায়নের ৬৩.৮৪ একর জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(৫) গোপালগঞ্জ জেলার বঙ্গবন্ধু দারিদ্র বিমোচন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মাণে ২০.০০ একর জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(৬) মুন্সিগঞ্জ জেলার পদ্মাবহুমুখী সেতু নির্মাণ প্রকল্পে অতিরিক্ত ১৯৮.২৩৮৯ একর জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(৭) ঢাকা জেলার কেরানীগঞ্জ উপজেলায় চর গলগলিয়া মৌজায় ৯৫.০২ একর জমি বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের অনুকূলে হস্তান্তরের নিমিত্ত অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(৮) ঢাকা মহানগরীর মিরপুর গ্রামীণ ব্যাংক হতে আগারগাঁও পর্যন্ত সড়ক নির্মাণের জন্য ১২.২২০৬ একর জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(৯) ঢাকা জেলা মাদানী এভিনিউ এর পূর্বমূখী রাস্তা সম্প্রসারণে (বালুনদী পর্যন্ত) ৪৫.৩৩৪০ একর জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(১০) ঢাকা মহানগরীর কুর্মিটোলা বিমান ঘাটি হতে বাউনিয়া খাল পর্যন্ত জলাবদ্ধতা দূরীকরণের জন্য ২,২১ একর জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(১১) নারায়নগঞ্জ জেলায় মাঝের চর মহজমপুর রূপসী সড়ক নির্মাণে ৩.৩০ একর জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(১২) নারায়ণগঞ্জ জেলার আমলাব ও হরিপুর মৌজায় পৃথক পৃথকভাবে ফায়ার সার্ভিস স্টেশন নির্মাণে (০.৫০+০.৫০) জমি অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(১৩) মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর অভিপ্রায় অনুযায়ী ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় ১২টি স্কুল কলেজ স্থাপনের আওতায় ৫টি স্কুল ও ৪টি কলেজ স্থাপনের জন্য জমি রিজিউম করে খাস করা হয়েছে। অধিগ্রহণ কাজ চলমান।

(১৪) বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য রাজউকের অনুকূলে অধিগ্রহণকৃত ৩.৮৩ একর জমি রিজিউম করে খাস করা হয়েছে এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুকূলে হস্তান্তর করা হয়েছে।

(১৫) সেগুনবাগিচা আরামবাগ খাল পুনঃ খনন (২য় অংশ) ২.৬৪ একর অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(১৬) সাভার উজেলার মেঘনাঘাট-আমিন বাজার ৪০০ কেভি বিদ্যুৎ সঞ্চালন প্রকল্প ১০.০০ একর অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(১৭) বেগুনবাড়ি খাল (হাতিরঝিল প্রকল্প) ৭৯.১৬৩১ একর অধিগ্রহণ কাজ সম্পন্ন।

(১৮) মাঝিনা-কায়েতপাড়া ত্রিমোহনী সড়ক প্রকল্পে ৫.৯৬৮৭ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(১৯) মিরপুর থানার কালশি বাইশ ডেকি খাল উন্নয়ন প্রকল্পে ৭.৪০ একর জমির অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২০) বাখরাবাদ-সিদ্ধিরগঞ্জ গ্যাস সঞ্চালন প্রকল্প ১৯.৭০৯৪ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২১) বন্দর উপজেলায় বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপন ১২.৫৮৭৯ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২২) ডেমরা-আমুলিয়া-রামপুরা সড়ক প্রকল্প ৩৩.০০৬৮ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২৩) শিরনীরটেক হতে গাবতলী সংযোগ সড়ক নির্মাণ ৩.৬৭৭৭ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২৪) গাজীপুর জেলায় সিগনালিংসহ টঙ্গী-ভৈরব সহ টঙ্গী বাজার ডাবল লাইন প্রকল্পের ৯.১৫০৯ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২৫) নরসিংদী জেলার সিগনারিংসহ টঙ্গী-ভৈরব বাজার ডাবল লাইন প্রকল্পের ১২.৬৬১০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২৬) জামালপুর সড়ক নেটওয়ার্ক প্রকল্পে ৫৯.৯৯ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২৭) ময়মনসিংহ জেলায় ভালুকা-নান্দাইল সড়ক উন্নয়ন প্রকল্পে ১৬২.১৭৭৭ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২৮) চট্র্রগ্রাম মহানগরীর প্যারেড গ্রাউন্ড হতে কার্পাসগোলা রোড সম্প্রসারণ ০.৫৯১৫ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(২৯) চট্রগ্রাম মহানগরীর চট্রগ্রাম কলেজ হতে কার্পাসগোলা রোড সম্প্রসারণ ১.২২৩৭ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩০) চট্রগ্রাম মহানগরীর চকবাজার লালচান রোড সম্প্রসারণ ০.৮৮ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩১) চট্রগ্রাম মহানগরীর এশিয়ান ইউনিভার্সিটি ফর উইমেন্স স্থাপনের নিমিত্ত ২৬.৯৭ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩২) লক্ষীপুর চর আলেকজান্ডার সোনাপুর মাইজদী সড়ক নির্মাণ প্রকল্পে ৪.৬২২৫ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩৩) চাঁদপুর জেলায় যমুনা-মেঘনা রিভার ইরোশন মিটিগেশন প্রকল্পে ৭.৩৮ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩৪) বরিশাল সিটি কর্পোরেশন এলাকার ময়লা অপসারনে সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজমেন্ট এবং ইনসিনেটর মেশিন স্থাপন করার জন্য ৭.৫৫ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩৫) বরিশার সদর ফায়ার সার্ভিস স্টেশন স্থাপন প্রকল্পের জন্য ০.৫০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩৬) সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় পশু জবাইখানা নির্মাণের জন্য ০.৪০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩৭) পাবনা জেলায় “পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়” স্থাপনের জন্য ৩০.০০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩৮) বাগেরহাট জেলার মংলা উপজেলার জয়মনিরগোল মৌজায় Construction of a Concret Grain Silo at Mongla Port with Ancillary Facilities (5000 MT Capacity) প্রকল্পে ৪২.৩৬ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৩৯) কুষ্টিয়া জেলার সদর উপজেলার বটতেল, চেঁচুয়া, ঢাকা-ঝালপাড়া, মিনাপাড়া, বারখাদা এবং মিরপুর উপজেলার বারুইপাড়া মৌজায় কুষ্টিয়া বাইপাস সড়ক প্রকল্পে ৫৫.১৬৯৫ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪০) পাবনা জেলার কাজিরহাট হতে সাতবাড়ীয়া পর্যন্ত বাঁদ নির্মাণ প্রকল্পের জন্য বেড়া উপজেলার ৭টি মৌজার ৯০.১৯ একর এবং সুজানগর উপজেলার ৫টি মৌজার ৪৯.৯৮ একর সহ সর্বমোট ১৪০.১৭ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪১) খুলনা জেলার ডুমুরিয়া উপজেলার রংপুর মৌজায় খুলনা সিটি কর্পোরেশন কর্ক খুলনা  স্যানিটারি ল্যান্ড ফিল্ড নির্মাণ প্রকল্পের জন্য ১৭.০০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪২) বাগেরহাট জেলার মোংলা উপজেলার জয়মনিরগোল মৌজায় খুলনা শিপইয়ার্ড লিমিটেড এর ফরওয়ার্ড ইয়ার্ড নির্মাণের জন্য ৪২.৮০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪৩) নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর উপজেলাধীন বারইশালপাড়া, লক্ষণপুর চড়কপাড়া এবং লক্ষণপুর বালাপাড়া মৌজায় তিস্তা ব্যারেজ প্রকল্পে (২য় পর্যায় ) ১ম ইউনিট এর আওতায় বগুড়া সেচ খাল নির্মাণের জন্য ৮২.০০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪৪) দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলাধীন বেলাইচন্ডি কুঠিপাড়া, বেলাইচন্ডি, জগন্নাথপুর এবং রামপুর মৌজায় তিস্তা ব্যারেজ (২য় পর্যায়) ১ম ইউনিট এর আওতায় ১৯২.১৩ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪৫) বাগেরহাট জেলার রামপাল উপজেলাধীন ০৯ নং কৈগরদাসকাঠি এবং ১০ নং সাপমারিকাটাখালী মৌজায় কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ প্রকল্পের জন্য ১৮৩৪.০০ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪৬) দিনাজপুর জেলার পার্বতীপুর উপজেলাধীন রামপুর ও খামার জগন্নাথপুর মৌজায় তিস্তা ব্যরেজ প্রকল্প (২য় পর্যায়) ১ম ইউনিট এর আওতায় বগুড়া সেচ খাল নির্মাণের জন্য ৭১.৫২ একর জমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪৭) ফরিদপুর জেলার পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তক জিয়ানগর হতে হুলারহাট পর্যন্ত বেড়ীবাঁধ স্লুইসগেট ও রাস্তা নির্মাণ প্রকল্পের জন্য ৫টি এলএ কেসের মাধ্যমে ২.৪৬ একর ভূমির অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪৮) বরিশাল জেলার সদর উপজেলাধীন কর্নকাঠি মৌজার বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন প্রকল্পের জন্য ৫০.০০ (একর) ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৪৯) চট্রগ্রাম জেলার আনোয়ারা উপজেলাধীন মাঝেরচর ও রাংগাদিয়া মৌজায় ৫৯৫.৩৬ একর (কম/বেশী) ভূমি কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্র নির্মাণের জেটি স্থাপন ও ষ্টোর ইয়ার্ড প্রকল্পের জন্য অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫০) বাখরাবাদ সিদ্ধিরগঞ্জ গ্যাস সঞ্চালন পাইপ লাইন প্রকল্পের আওতায় ৩০ ইঞ্চি ব্যাসের ৬০ কিলোমিটার দীর্ঘ গ্যাস সঞ্চালণ পাইপ লাইন ও আনুসঙ্গিক ফ্যাসিলিটিজ নির্মাণের জন্য কুমিল্লা জেলার মুরাদনগর ও দাউদকান্দি উপজেলার মোট ৩২টি মৌজায় ৫৭.৩৪০৩ একর ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫১) কুমিল্লা জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলাধীন বাবুরহাট-মতলব পেন্নাই সড়ক উন্নয়ন (২য় পর্যায়) শীর্ষক প্রকল্পের  আওতায় স্থায়ীভাবে নির্মাণের জন্য ৬টি এলএ কেসমূলে চাঁদপুর জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলাধীন বিভিন্ন মৌজায় মোট ১১.৪৬৫ একর ভূমির অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫২) কুমিল্লা জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলাধীন বাবুরহাট-মতলব পেন্নাই সড়ক উন্নয়ন (২য় পর্যায়) শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় স্থায়ীভাবে নির্মাণের জন্য ৪টি এলএ কেসমূলে চাঁদপুর জেলার মতলব দক্ষিণ উপজেলাধীন বিভিন্ন মৌজায় মোট ৬.৪৬৯ একর ভূমির অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫৩) চট্রগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি ও হাটহাজারী উপজেলাধীন গ্যাস সরবরাহ পাইপ লাইন নির্মাণ প্রকল্পের জন্য ২০.৫১২৬ একর ভূমির অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫৪) ফেণী জেলার ০৬/২০০৭-২০০৮ এলএ কেসে ৭.৬০৪ একর ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫৫) ফেণী জেলার ০৬/২০০৯-২০১০ এলএ কেসে ১.৫৩২ একর ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫৬) ফেণী জেলার ০৬/২০০৭-২০০৮ এলএ কেসে ৮.৭৮৩ একর ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫৭) সড়ক উন্নয়ন বরিশাল জোন শীর্ষক প্রকল্পের অন্তর্ভক্ত বরিশাল সড়ক বিভাগাধীন আগৈলঝড়া বাইপাস সড়ক নির্মাণ প্রকল্পের জন্য ২৬.১৫ একর ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫৮) চট্রগ্রাম জেলার বাকলিয়া থানাধীন কল্পলোক আবাসিক প্রকল্পের জন্য বাকলিয়া মৌজায় ২১.৪৭৫ একর ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৫৯) পটুয়াখালী জেলার গলাচিপা উপজেলাধীন ১৩৬ নং ছাতিয়ান পাড়া মৌজায় উপকূলীয় বাঁধ নির্মাণের জন্য অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৬০) পটুয়াখালী জেলার সদর উপজেলাধীন বেড়ীবাঁধ ও স্লুইস গেট নির্মাণের জন্য ১৪.৭৬ একর ভূমি অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।

(৬১) বরিশাল জেলায় ট্রাক টার্মিনাল স্থাপনের জন্য বরিশাল জেলার সদর উপজেলাধীন ইছাকাঠি মৌজায় ৭.৭৯ একর ভূমির অধিগ্রহণ কার্যক্রম সম্পন্ন।


Share with :

Facebook Twitter